বিয়ের শপিং নিয়ে হালকা খুটিনাটি

মানবজীবনের প্রধান তিনটি অধ্যায় হল জন্ম, মৃত্যু ও বিয়ে। বিয়ে মানেই একটি আনন্দঘন মুহুর্ত। বিয়ের প্রধান কেন্দ্রবিন্দু বর ও কনে। বিয়ের অনুষ্ঠানিকতা নিয়ে আত্মীয় স্বজনদের মধ্যেও থাকে ব্যাপক পস্তুতি। কেনাকাটা বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পাদন জন্য অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আমরা যারা ঢাকাবাসী অনেকেই বিয়ের কেনাকাটার জন্য সঠিক স্থানের সন্ধান না পাওয়ার কারণে, বেশিদামে কিংবা অনেক আইটেম সম্পর্কে না জানার জন্য কেনাকাটা সঠিক হয়ে ওঠেনা। বিয়ের কেনাকাটা সম্পর্কে কিছু তথ্য তুলে ধরা হল।

ঢাকা শহরে বিভিন্ন মার্কেট ও পাড়া মহল্লায় অল্প কিছু বিয়ের দোকান বিদ্যমান। এলিফ্যান্ট রোডে ৩০টির অধিক বিয়ের দোকান আছে। আর হিন্দুদের বিয়ের জন্য শাঁখারী পট্টির প্রায় পুরোটা জুড়ে রয়েছে অগনিত দোকান। আর পাইকারী কেনার জন্য ঢাকার চক বাজারে বেশ কতগুলো দোকান রয়েছে।

 

একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে সাধারণত যে সব পন্যের দরকার হয় এবং দাম কেমন সে সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক-

 

আইটেম মূল্য
বরের শেরওয়ানি ১০০০০/- থেকে ৩০০০০/- টাকা
পাজামা ৫০০/- থেকে ১০০০/- টাকা
ওড়না ৭০০/- থেকে ১৫০০/- টাকা
পাগরী ১৫০০/- থেকে ৩০০০/-টাকা
নাগরজুতা ১৫০০/- থেকে ৬০০০/- টাকা
ডালা ২২০/- থেকে ৭০০/- টাকা
কুলা ১২০/- থেকে ৬০০/- টাকা
বাটি/প্রদীপ ১০/- থেকে ৫০/- টাকা
রাখী ৬০/- থেকে ১২০০/- টাকা
উপটান ৯০/- থেকে ১২০/- টাকা
সোন্দা ৯০/- থেকে ১২০/- টাকা
চন্দন ১২০/- থেকে ২০০/- টাকা
হলুদ ৯০/- থেকে ১২০/- টাকা
চন্দন তেল ১৫০/- থেকে ৩০০/- টাকা
সোহাগপুরী ৩৫০/- থেকে ৯৫০/- টাকা
আলতা ৩০/- থেকে ৬০/- টাকা
মেহেদী ৪০/- থেকে ১২০/- টাকা
পাটি ১৫০/- থেকে ১৬০০/- টাকা
হলুদ তোয়ালে ১২০/- থেকে ৪৫০/- টাকা
আফসান ২০/- থেকে ৩০/- টাকা
রুমাল ৫০/- থেকে ৩৫০/- টাকা
পালকি ১৫০/- থেকে ৬০০/- টাকা
ঝুড়ি ১০০/- থেকে ৭৫০ টাকা
মাছ ডালা ২৫০/-  থেকে ১২০০/- টাকা
টুথ পিক ২০/- থেকে ৫০/- টাকা
তাজা গোলাপ ফুল প্রতি হাজার পিস ৩০০০ টাকা প্রতি পিস ৫ থেক ১০ টাকা
সাদা ফুল প্রতি হাজার পিস ১২০০ টাকা প্রতি পিস ৪ থেক ৬ টাকা
রজনী গন্ধা প্রতি হাজার ২২০০ টাকা

প্রতি পিস ৫ থেকে ১০ টাকা।

 

হিন্দু বিয়ের যাবতীয় কেনা কাটা করা যাবে শাঁখারী পট্টিতে। এখানে দেশী পাশাপাশি ভারতীয় পণ্যের পণ্যের ব্যাপক প্রতাপ। মূল্যও তুলনামূলকভাবে কম। শাঁখারী পট্টিতে শোলার তৈরি পাগড়ি সহ বিভিন্ন আইটেম অর্ডার মাফিক বানানো ব্যবস্থা আছে।

 

বিয়ের পাইকারি বাজার

বিয়ের আইটেম সস্তায় কেনার জন্য চকবাজার পাইকারি মার্কেট একমাত্র উপায়। এখান থেকে সারা বাংলাদেশে পাইকারি বিক্রি হয়।

 

পাইকারী দরদাম

ডালা ও কুলা পাইকারি কেনা এবং বিক্রি হয় সেট হিসেবে (প্রতি সেটে থাকে তিনটি আইটেম)। পিস হিসেবেও বিক্রি হয়। ছোট সেট ৪০০-৫০০, মাঝারি ৮০০-১০০০ ও বড় সাইজের দাম ১২০০-১৫০০ টাকা। আজকাল রঙিন কাপড়ে মোড়ানো কারুকার্যখচিত ডালা ও কুলার চাহিদা বেশি। পাইকারি হিসাবে প্রতি পাটির দাম কারুকার্যখচিত ৫০০-৫৫০, সাধারণ ২২০-২৫০ টাকা।

নাগরা জুতার মধ্যে পাকিস্তানি মাথা কাটা নাগরার দাম ৮০০ এবং মাথা বাঁকা নাগরার দাম ১১০০-১২০০ টাকা। দেশি নাগরার দাম সাধারণ মানের ৩০০ এবং কারুকার্যখচিতগুলো ৪০০-৫০০ টাকা। রাজস্থানী পাগড়ি ভারত থেকে কেনার সময় পাইকারি দাম সর্বনিম্ন ১০০০ এবং সর্বোচ্চ ২৫০০ টাকা। পাগড়ির মালামাল অনেক সময় ভারত থেকে এনে দেশে ফিটিং করা হয়, এতে রেট অনেক কম পড়ে।

 

শেরওয়ানি পাইকারি কেনার সময় ভারতে দম সাধরণ মানেরগুলো ৪০০০-৫০০০ এবং ভালো মানের ১০০০০-১২০০০ টাকা।

 

ভাড়া

বিয়ের সাজ-পোষাকের কিছু কিছু আইটেম ভাড়া দেয়া হয়।

আইটেম ভাড়া
শেরওয়ানী ৩০০০ থেকে ৮০০০/-
পাগড়ী  ৩০০ থেকে ৮০০/-

 

উল্লেখ্য

  • আমদানী ব্যয় কিংবা বিশেষ বিশেষ কারণে উল্লেখিত দামের হের ফের হতে পারে।
  • ভাড়া নেয়া শেরওয়ানী ওয়াশ করে ফেরত দিতে হয়।
  • পোষাক জাতীয় পন্য ক্রয়ের আগে ট্রায়াল দেবার ব্যবস্থা আছে।
  • ভিডিও, স্টিল ফটোগ্রাফি ও সাজসজ্জার দরকার হলে দোকানগুলোর মাধ্যমে যোগাযোগের ব্যবস্থা আছে।
  • ক্রয়কৃত পন্য ফেরৎ নেয়া হয় না।
  • নগদ টাকার মাধ্যমে ক্রয় করতে হয়।
  • পাইকারির জন্য চকের খান মার্কেট, মরিয়ম প্লাজা সহ বেশ কয়েকটি মার্কেটে শত শত দোকান বিদ্যমান।
Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *